53 বার ভিউ
"ইসলাম ধর্ম" বিভাগে করেছেন

একজন মেয়ে পরিস্থিতির শিকার হয়ে নিজের সম্ভ্রম রক্ষা করার জন্য ছেলেটির মায়ের কসম দিয়েছিল। এ কসমের কারণে ছেলেটি থেমে যায়। মেয়েটি জানে, কসম একমাত্র আল্লাহর নামে হয়। কিন্তু পরিস্থিতির সে মুহূর্তে সে তার মায়ের নামে কসম দিয়ে ফেলে, এ ক্ষেত্রে কি কসমের কাফফারা দিতে হবে?

1 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন

না, এ ধরনের কসমের কোনো কাফফারা নেই। তবে এটি গুনাহ, তাকে অবশ্যই তওবা করতে হবে। কারণ, এই কাজ তিনি হারাম কাজ করেছেন এবং কেউ কেউ এটাকে শিরক বলেছেন। যেহেতু কোনো ব্যক্তির নামে কসম করার বিষয়ে রাসূলুল্লাহ (সা.)-এর হাদিসের মধ্যে রয়েছে, ‘যে ব্যক্তি গায়রুল্লাহর নামে কসম করল, সে শিরকে লিপ্ত হলো।’তবে এ ক্ষেত্রে যেহেতু সম্ভ্রম বাঁচানোর জন্য অনিচ্ছাকৃতভাবে কসম দিয়েছেন, সেহেতু এই কাজ আপনার শুদ্ধ হয়নি। এটি হারাম কাজ হয়েছে। বাকি যেটি হয়েছে, সেটি হলো কসমটি আপনি কীভাবে দিয়েছেন, সেটাও কিন্তু এখানে স্পষ্ট করেননি। সেটার ওপর নির্ভর করছে এর হুকুম। তবে এ কাজ থেকে আপনাকে তওবা করতে হবে এব‌ং এটাই যথেষ্ট। এর জন্য কোনো কাফফারা দিতে হবে না।

আপনার বিভিন্ন সমস্যার সমাধান বা অজানা উত্তরের জন্য বিনামূল্যে আমাদের প্রশ্ন করতে পারবেন। প্রশ্ন করতে দয়া করে প্রবেশ, কিংবা নিবন্ধন করুন।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

9.6k টি প্রশ্ন

7.5k টি উত্তর

250 টি মন্তব্য

1.2k জন সদস্য

প্রশ্ন করুন
ক্যোয়ারী অ্যানসারস এ সুস্বাগতম, এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন, বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।

বিভাগসমূহ

ক্যোয়ারী অ্যানসারস এ প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, কোনভাবেই ক্যোয়ারী অ্যানসারস দায়বদ্ধ নয়।
...