113 বার ভিউ
"স্বাস্থ্য টিপস" বিভাগে করেছেন
খেতে খেতে আমি অনেক বেশি মোটা হয়ে যাচ্ছি তারপরও আমার খেতে ভালোলাগে এবং একটু পরপর ক্ষুধা লাগে। আমি জানতে চাই খাওয়ার রুচি কমানোর কোনো উপায় আছে কি ?


1 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন

অনেকেই আছেন যারা খেতে অনেক পছন্দ করেন বিশেষ করে ফাস্টফুড জাতীয় খাবার। খাবারের প্রতি এক ধরনের আসক্তি কাজ করে এইসব ব্যক্তিদের। ফলে বয়সের তুলনায় স্বাস্থ্য বাড়ছে কয়েক গুণ হারে।

খাবারের আসক্তির পেছনে কিছু কারণ :

- আপনি ক্ষুধার্ত না থাকলেও খেতে চান।

- আপনার পেট ভরলেও মন ভরে না। ফলে আপনি খেয়ে যান।

- আপনি ক্লান্ত হয়ে যাওয়ার পরও খেয়ে যাচ্ছেন।

- কিছু খাবার আপনাকে বেশি আকর্ষণ করে।

- বন্ধুদের জোরাজুরিতেও আপনি খাচ্ছেন অনেক বেশি।

- খাওয়ার সময়ে অঅপনি স্বাস্থ্য সম্পর্কে কোনোকিছুই ভাবছেন না।

- আপনি আপনার খাওয়াটাকে বেশ উপভোগ করেন।

খাওয়ার রুচি যেভাবে কমাবেন :

আসলে খাওয়ার রুচি কমানো খুবই জটিল একটি প্রক্রিয়া। কোনোভাবেই একে নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হয় না কারণ এর সাথে যুক্ত থাকে খাওয়ার ইচ্ছা। তারপরও কিছু চেষ্টা করে যেতে পারেন।

- আপনি যদি খাওয়ার রুচি কমাতে চান তাহলে সর্বাগ্রে এবং গুরুত্ব সহকারে যে কাজটি করতে হবে তা হল নিজের মনকে বা ইচ্ছাকে নিয়ন্ত্রণ করা। এই অসাধ্য কাজটি করতে পারলেই আপনি নিঃসন্দেহে খাওয়ার রুচি কমিয়ে আনতে পারবেন।

- ভারী খাবার থেকে বিরত থাকুন।

- পানীয় খাবার এর পরিবর্তে বেশি করে খেতে পারেন।

- কখনই ক্ষুধার্ত অবস্থায় থাকবেন না। অল্প অল্প করে সবসময় খেতে পারেন। এতে করে অন্যান্য শারীরিক সমস্যা দেখা দিবে না।

- কোনো ধরনের যেমন ধূমপান বা অ্যালকোহলিক আসক্তি থাকলে তা বাদ দিন। তাহলে আপনার খাওয়ার রুচি কমে নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে।

- সবশেষে ডাক্তারি পরামর্শ নিতে পারেন। 

ধন্যবাদ

আপনার বিভিন্ন সমস্যার সমাধান বা অজানা উত্তরের জন্য বিনামূল্যে আমাদের প্রশ্ন করতে পারবেন। প্রশ্ন করতে দয়া করে প্রবেশ, কিংবা নিবন্ধন করুন।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

9.6k টি প্রশ্ন

7.5k টি উত্তর

250 টি মন্তব্য

1.1k জন সদস্য

প্রশ্ন করুন
ক্যোয়ারী অ্যানসারস এ সুস্বাগতম, এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন, বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।

বিভাগসমূহ

ক্যোয়ারী অ্যানসারস এ প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, কোনভাবেই ক্যোয়ারী অ্যানসারস দায়বদ্ধ নয়।
...