176 বার ভিউ
"ইসলাম ধর্ম" বিভাগে করেছেন

অনেক সময় দেখা যায়, অনেক শার্ট, টি-শার্ট বা জামা-কাপড়ের ওপর ছোট্ট সুতার কাজ করে কোনো জীবজন্তু অথবা মানুষের অস্পষ্ট মুখশ্রী বা এমন কিছু দেওয়া থাকে। আমার প্রশ্ন হচ্ছে, এ ধরনের কাপড় পরা কি একেবারেই হারাম? ঢেকে বা অন্য কোনোভাবে এই কাপড় পরা যাবে কি না? আর এই কাপড় পরে নামাজ হবে কি না?

1 উত্তর

1 টি পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন
 
সর্বোত্তম উত্তর

না, এগুলো পরা হারাম নয়। যদি এখানে সুস্পষ্টভাবে কোনো প্রাণীর আকৃতি বোঝা না যায়, পরিদৃষ্ট না হয়, তাহলে এগুলো পরা হারাম নয়। কিন্তু যেহেতু যিনি পরছেন, তিনি তো বুঝতে পারছেন যে এখানে একটা প্রাণীর ছবি আছে। যদিও ছবিটা অস্পষ্ট। সে ক্ষেত্রে উত্তম হচ্ছে সেটাকে ঢেকে রাখা অথবা এটা পরা থেকে বিরত থাকা। কারণ, আমাদের জানতে হবে, আমরা যখন ইসলাম গ্রহণ করেছি, কীভাবে ইসলাম গ্রহণ করেছি? সেটা হচ্ছে সব ধরনের মূর্তি ও প্রতিমা পূজা থেকে নিজেকে সম্পূর্ণ মুক্ত করে তারপর ইসলাম গ্রহণ করেছি। সুতরাং কোনোভাবেই যাতে করে আমার সঙ্গে এর কোনো সম্পৃক্ততা না থাকে, সেটা আমাকে সতর্কতার সঙ্গে দৃষ্টি দিতে হবে, খেয়াল রাখতে হবে।

এ ক্ষেত্রে সুস্পষ্টভাবে যদি কোনো আকৃতি বোঝা না যায়, তাহলে এটি পরা হারাম নয়। কিন্তু পরিহার করতে পারলে সবচেয়ে উত্তম। কারণ, আপনি হয়তো বুঝতে পারছেন যে এটি সঠিক হচ্ছে না। কিন্তু আপনি যদি এটি ঢেকে সালাত আদায় করেন, এতে আপনার সালাত হয়ে যাবে। কোনো সন্দেহ নেই। এতে সরাসরি পূজার সম্পর্ক আসে না। কিন্তু পূজার একটা অংশ এখানে ঢুকে যায়। এ জন্য সতর্কতা অবলম্বন করা ইমানদার ব্যক্তিদের একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। সতর্কতা অবলম্বন করা প্রয়োজন।

আপনার বিভিন্ন সমস্যার সমাধান বা অজানা উত্তরের জন্য বিনামূল্যে আমাদের প্রশ্ন করতে পারবেন। প্রশ্ন করতে দয়া করে প্রবেশ, কিংবা নিবন্ধন করুন।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

9.6k টি প্রশ্ন

7.5k টি উত্তর

250 টি মন্তব্য

1.2k জন সদস্য

প্রশ্ন করুন
ক্যোয়ারী অ্যানসারস এ সুস্বাগতম, এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন, বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।

বিভাগসমূহ

ক্যোয়ারী অ্যানসারস এ প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, কোনভাবেই ক্যোয়ারী অ্যানসারস দায়বদ্ধ নয়।
...