167 বার ভিউ
"ইসলাম ধর্ম" বিভাগে করেছেন

আমার বাবা ১৯৯০ সালের ডিসেম্বরে ইন্তেকাল করেছেন। বর্তমানে আমার বয়স প্রায় ৫৭ বছর। এখন আমার প্রশ্ন হলো, আমার যদি স্বাভাবিক মৃত্যু হয়, তাহলে কি আমার লাশ আমার বাবার কবরে সমাহিত করা যাবে? এ ব্যাপারে কি শরিয়তের কোনো বিধান আছে?

2 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন

আপনার বাবা মারা গেছেন ১৯৯০ সালে। এখন আপনার বয়স ৫৭ বছর। আপনি আপনার মৃত্যুর ব্যাপারেও চিন্তা করছেন। মৃত্যুকে স্মরণ করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়, এতে কোনো সন্দেহ নেই।

আপনি জানতে চেয়েছেন, আপনার বাবার সেই কবরে আপনাকেও কবরস্থ করা বা দাফন করা যাবে কি না। হ্যাঁ, এটি জায়েজ, নাজায়েজ নয়।

একই জায়গায় একাধিক ব্যক্তিকে কবর দেওয়া জায়েজ রয়েছে, এটি নাজায়েজ নয়। একটি কবরের ওপর আরেকটি কবর হতে পারে। সে ক্ষেত্রে কবর খোঁড়ার পর যদি অবশিষ্ট কোনো হাড় বা কোনো কিছু থেকে যায়, তাহলে সেগুলো একসঙ্গে করে অন্যত্র আবার দাফন করে দেবে বা রেখে দেবে।

একই কবরের মধ্যে একাধিক ব্যক্তিকে দাফন করা জায়েজ রয়েছে। কিন্তু যদি তাঁর লাশ রয়ে যায়, তাহলে সেখানে আর কবর দেওয়া যাবে না। এক লাশের ওপর আরেক লাশ কবর দেওয়ার ব্যাপারে কিছু বিতর্ক রয়েছে। সে ক্ষেত্রে আর কবর দেওয়ার আর প্রয়োজন নেই।

আলহামদুলিল্লাহ, আমাদের এখানে হয়তো শহরগুলোতে কবরের জন্য জায়গার অভাব রয়েছে, কিন্তু গ্রামগঞ্জে কবরস্থান থাকে, সেখানে সুযোগ আছে। সেটা চিন্তা করা যেতে পারে। তারপরও ব্যবস্থা হয়ে যায়, কবর তো দেওয়াই যায়। আল্লাহ আমাদের জন্য সুযোগ সৃষ্টি করেই দেন।

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন

আপনার বাবা মারা গেছেন ১৯৯০ সালে। এখন আপনার বয়স ৫৭ বছর। আপনি আপনার মৃত্যুর ব্যাপারেও চিন্তা করছেন। মৃত্যুকে স্মরণ করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়, এতে কোনো সন্দেহ নেই।

আপনি জানতে চেয়েছেন, আপনার বাবার সেই কবরে আপনাকেও কবরস্থ করা বা দাফন করা যাবে কি না। হ্যাঁ, এটি জায়েজ, নাজায়েজ নয়।

একই জায়গায় একাধিক ব্যক্তিকে কবর দেওয়া জায়েজ রয়েছে, এটি নাজায়েজ নয়। একটি কবরের ওপর আরেকটি কবর হতে পারে। সে ক্ষেত্রে কবর খোঁড়ার পর যদি অবশিষ্ট কোনো হাড় বা কোনো কিছু থেকে যায়, তাহলে সেগুলো একসঙ্গে করে অন্যত্র আবার দাফন করে দেবে বা রেখে দেবে।

একই কবরের মধ্যে একাধিক ব্যক্তিকে দাফন করা জায়েজ রয়েছে। কিন্তু যদি তাঁর লাশ রয়ে যায়, তাহলে সেখানে আর কবর দেওয়া যাবে না। এক লাশের ওপর আরেক লাশ কবর দেওয়ার ব্যাপারে কিছু বিতর্ক রয়েছে। সে ক্ষেত্রে আর কবর দেওয়ার আর প্রয়োজন নেই।

আলহামদুলিল্লাহ, আমাদের এখানে হয়তো শহরগুলোতে কবরের জন্য জায়গার অভাব রয়েছে, কিন্তু গ্রামগঞ্জে কবরস্থান থাকে, সেখানে সুযোগ আছে। সেটা চিন্তা করা যেতে পারে। তারপরও ব্যবস্থা হয়ে যায়, কবর তো দেওয়াই যায়। আল্লাহ আমাদের জন্য সুযোগ সৃষ্টি করেই দেন।

আপনার বিভিন্ন সমস্যার সমাধান বা অজানা উত্তরের জন্য বিনামূল্যে আমাদের প্রশ্ন করতে পারবেন। প্রশ্ন করতে দয়া করে প্রবেশ, কিংবা নিবন্ধন করুন।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

9.6k টি প্রশ্ন

7.5k টি উত্তর

250 টি মন্তব্য

1.1k জন সদস্য

প্রশ্ন করুন
ক্যোয়ারী অ্যানসারস এ সুস্বাগতম, এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন, বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।

বিভাগসমূহ

ক্যোয়ারী অ্যানসারস এ প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, কোনভাবেই ক্যোয়ারী অ্যানসারস দায়বদ্ধ নয়।
...