227 বার ভিউ
"রূপচর্চা" বিভাগে করেছেন

আমি ছেলে, ত্বকের ক্ষতি না করে ফর্সা হব কিভাবে ?

1 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন

ভেতর থেকে রঙ করুন উজ্জ্বল-

রূপচর্চায় দুধ ও কাঁচা হলুদের ব্যবহার যুগ যুগ ধরে হয়ে আসছে। প্রতিদিন এক গ্লাস উষ্ণ গরম দুধে আধা চা চামচ কাঁচা হলুদ বাটা মিশিয়ে পান করুন। এভাবে পান করতে না পারলে এর সঙ্গে মধু মিশিয়ে নিন। নিয়মিত হলুদ মেশানো দুধ পান করলে আপনার রং হয়ে উঠবে ভেতর থেকে ফরসা। দুধে কাঁচা হলুদ বাটা না মিশিয়ে করতে পারেন আরেকটি কাজ। দেড় ইঞ্চি সাইজের এক টুকরো হলুদ নিন। তারপর টুকরো করে কেটে এক গ্লাস দুধে দিয়ে ভালো করে ফুটিয়ে নিন। দুধে গাঢ় হলুদ রঙ ধরলে পান করুন। এভাবে প্রতিদিন একবার পান করবেন।

রূপচর্চায় হলুদ

শুধু দুধের সাথে নয়, বাহ্যিক রূপচর্চাতেও হলুদ আপনার রঙ পরিষ্কার করতে সহায়তা করবে। বিশেষ করে কালচে ছোপ দূর করতে এই পদ্ধতি খুব কার্যকর। উপকরণ দুধ ৩ টেবিল চামচ, লেবুর রস ১ টেবিল চামচ, এবং কাঁচা হলুদ বাটা ১ চা চামচ কীভাবে ব্যবহার করবেন?

-দুধ, লেবুর রস ও হলুদ গুঁড়ো একসঙ্গে মিশিয়ে একটি মিশ্রন বা পেস্ট তৈরি করুন। সারা মুখে এই পেস্ট ভালভাবে লাগিয়ে প্যাকটি শুকনো হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। শুকিয়ে গেলে ঠান্ডা পানিতে পরিষ্কার করে ধুয়ে নিয়ে নরম তোয়ালে দিয়ে আলতো করে মুছে নিন। গরম পানিতে মুখ ধোবেন না এবং অন্তত ১২ ঘণ্টা রোদে যাবেন না।

ফর্সা-সুন্দরী- ০১: সর্বপ্রথম আপনার ত্বকের উপর থেকে রৌদের কঠিন বিষময় তাপ সরিয়ে ফেলুন। অথ্যাৎ নিজেকে রোদ থেকে বিরত রাখুন। প্রয়োজনে ছাতা ও স্নানগ্লাস সঙ্গে রাখুন যাতে আপনার ত্বককে রোদ পুরে ফেলতে না পারে।

ফর্সা-সুন্দরী- ০২: আপনার মুখ ভালভাবে ধুয়ে পরিস্কার রাখুন। প্রয়োজনে সামর্থ অনুযায়ী ফেস ওয়াশ করে মুখ পরিস্কার করুন। এছাড়াও তিল গুড়া করে অথবা পিষে তাতে সামান্য পরিমান পানি মিশিয়ে তরলটুকু পরিস্কার করে দেখবেন এক প্রকার সাদা তরল পানি ভাসছে। সেটি মুখে লাগান। মনে রাখবেন, আপনী বাহিরে চলাচল করার সময় মুখের যে স্থানগুলো বেশি রোদের তাপ প্রভাবিত হয় সে স্থানগুলোতে বেশি করে লাগান। আপনী ফর্সা হবেন।

ফর্সা-সুন্দরী- ০৩: আপনার পরিস্কার মুখে প্রতি সপ্তাহে দু একবার চন্দনের মাটি লাগিয়ে ২০/৩০ মিনিট শুকিয়ে পরিস্কার করুন। দেখুন আপনী ফর্সা হবেন। জেনে রাখবেন, আপনী এক দিনেই ফর্সা হবেন না। ধীরে ধীরে আপনার ত্বকের সৌন্দর্য পরিবর্তন হয়ে আপনার ফর্সা চেহারার অধিকারী হবেন।

ফর্সা-সুন্দরী-০৪: খাবার দুধ এবং দুধের স্বর এর উপরের টুকু আলতে ভাবে তুলে সেটি মুখে ব্যবহার করুন। পরিস্কার রাখুন দুধ দিয়ে নিজের মুখ। তাতে মুখের যাবতীয় ময়লা দূর হবে আর আপনী ফর্সা হবেন। চেষ্টা করুন সফল হবেন।

ফর্সা-সুন্দরী-০৫: আপনী যখন সাঁতার কাটবেন তথা সুইমিং পুলে থাকবেন তখন সমুদ্রের ধারে বরফ পড়ে আছে এমন যায়গায় যাওয়ার সময় চেষ্টা করবেন সান স্ক্রিন লাগিয়ে যাওয়ার জন্য। কারণ হলো পানি বা বরফে সূর্যরশ্মি সবচেয়ে বেশি প্রতিফলিত হয়। যা আপনার ত্বকের জন্য ক্ষতির কারণ।  

ফর্সা-সুন্দরী-০৬: আপনার ত্বককে আরও ফর্সায় রুপান্তরিত করতে আপনী মুখে দই লাগান। তারপর ২০ থেকে ৩০ মিনিট দইয়ের মধ্যে মুখ ভিজিয়ে রাখুন, দেখবেন আপনার ত্বকের উজ্জলতা বাড়বে। এভাবে প্রতি সপ্তাহে সর্বনিম্ন একদিন লাগান, আপনার রুপের পরিবর্তন আসবে।


আপনার বিভিন্ন সমস্যার সমাধান বা অজানা উত্তরের জন্য বিনামূল্যে আমাদের প্রশ্ন করতে পারবেন। প্রশ্ন করতে দয়া করে প্রবেশ, কিংবা নিবন্ধন করুন।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

9.6k টি প্রশ্ন

7.5k টি উত্তর

250 টি মন্তব্য

1.2k জন সদস্য

প্রশ্ন করুন
ক্যোয়ারী অ্যানসারস এ সুস্বাগতম, এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন, বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।

বিভাগসমূহ

ক্যোয়ারী অ্যানসারস এ প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, কোনভাবেই ক্যোয়ারী অ্যানসারস দায়বদ্ধ নয়।
...