"ইসলাম ধর্ম" বিভাগে করেছেন

সুদের টাকায় মসজিদ, মাদ্রাসা কি করা যাবে? আমরা অনেক ক্ষেত্রেই দেখে থাকি অবৈধ্য টাকা পয়সা দিয়ে মসজিদ মাদ্রাসা নির্মান করা হচ্ছে এবং সেখানে নামাজ আদায়ের সাথে সাথে মাদ্রসাতে ইসলামিক শিক্ষা প্রদান করা হচ্ছে । এই শিক্ষা প্রদান ও নামাজ আদায় ইসলামের দিক থেকে কী সঠিক হচ্ছে  এবং এটা কী জায়েজ ইসলামিক দৃষ্টি থেকে বিস্তারিত জানতে চাই?

বন্ধ

1 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন
নির্বাচিত করেছেন
 
সর্বোত্তম উত্তর

মসজিদ ও মাদ্রাসা দুটাকে একসঙ্গে করে দিয়েছেন। এটি ভুল কাজ। এটা আমাদের পরিভাষার মধ্যে কীভাবে যেন একসঙ্গে মিশে গেছে। আমরা মসজিদ বলতে মাদ্রাসা আর মাদ্রাসা বলতে মসজিদ বুঝি। কিন্তু এ দুটি আলাদা প্রতিষ্ঠান।

মাদ্রাসা হলো স্কুল, প্রতিষ্ঠান এবং সেটা ভিন্ন একটি বিষয়। মসজিদ হলো উপাসনালয়, ইবাদত, আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের ঘর, আল্লাহর ঘর। সুতরাং, বিশাল পার্থক্য রয়েছে।

মাদ্রাসা আপনি যেকোনো টাকা দিয়ে নির্মাণ করতে পারেন, সেটি জায়েজ। কিন্তু মসজিদ নির্মাণের কাজে উত্তম হচ্ছে, সেখানে সুদের টাকা বা হারাম টাকা ব্যবহার না করা। এটি হচ্ছে মসজিদ নির্মাণের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। কারণ, মসজিদ হচ্ছে আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের ঘর এবং এটি আল্লাহ সুবানাহুতায়ালার সন্তুষ্টির জন্য করা হয়ে থাকে। তাই এখানে যেন কোনো হারাম টাকা বা হারাম উপার্জন না ঢোকে, সেটি চেষ্টা করা হচ্ছে উত্তম।

এই উত্তমের মধ্যে আমরা ইঙ্গিত দিচ্ছি যেটা সেটা হলো, যদি কোনো কারণে কোনো প্রয়োজন দেখা দেয় যে মসজিদ নির্মাণে ব্যাহত হচ্ছে, মুসল্লিরা সালাত আদায় করতে পারছেন না, তাহলে সে ক্ষেত্রে যদি এই টাকা কেউ ব্যবহার করেন, তাহলে সেটা তাঁর জন্য জায়েজ রয়েছে, তিনি ব্যবহার করতে পারবেন।

ধন্যবাদ আপনার প্রশ্নের জন্য।

প্রশ্ন-উত্তরে অংশগ্রহণ করে অর্থ উপার্জন জন্য এখানে নিবন্ধন করুন, বিস্তারিত জন্য এখানে প্রবেশ করুন

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

5.2k টি প্রশ্ন

4.9k টি উত্তর

129 টি মন্তব্য

487 জন সদস্য

প্রশ্ন করুন
ক্যোয়ারী অ্যানসারস এ সুস্বাগতম, এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন, বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
ক্যোয়ারী অ্যানসারস এ প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, কোনভাবেই ক্যোয়ারী অ্যানসারস দায়বদ্ধ নয়।
...